ভারি বৃষ্টিতে বান্দরবানে কয়েক হাজার পরিবার পানিবন্দি

লামা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল বলেন, ভারী বৃষ্টিতে মাতামুহুরী নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে পৌর এলাকার আট হাজার ঘর ও দোকানপাট এবং আশপাশে কয়েকটি ইউনিয়নের প্রায় দুই হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে

মাইকিং করে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারীদের আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে বলা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা রেড ক্রিসেন্টের সাধরাণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর বলেন, পৌর এলাকার ইসলামপুর, কাসেমপাড়া, আর্মিপাড়া, বনানী স মিল, বাসস্টেশন, হাফেজঘোনা ও বালাঘাটা এলাকায় বন্যার পানিতে ঘরবাড়ি ডুবে গেছে। দুর্গত মানুষদের খিচুরি ও শুকনা খাবার দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে বান্দরবান-কেরানীহাট সড়কে বাজালিয়া এলাকায় সড়ক ডুবে যাওয়ায় বান্দরবানের সঙ্গে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের যানচলাচল তিন দিন ধরে বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ঝন্টু দাশ।

পরিবহন শ্রমিকরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রুমা-থানচি-রোয়াংছড়ি সড়কেও যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সড়কে পানি ওঠায় এবং কিছু জায়গায় ধসের কারণে কোনো গাড়ি চলাচল করতে পারছে না।